লাশ কাটার সময় মর্গে চিৎকার করতে লাগলেন ‘মৃত’ ব্যক্তি!

পিটার কিগেন

কেনিয়ায় একটি হাসপাতালে এক ব্যক্তিকে মৃত দাবিকরে ঘোষণা করেছিলেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা। মর্গে তার দেহ সংরক্ষণের জন্য রাখা হয়েছিল। সেখানেই যখন তার দেহ সংরক্ষণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে তখনই জেগে ওঠেন ওই ‘মারা যাওয়া’ ব্যক্তি। জেগে নিজেকে মর্গে দেখেই চিৎকার করতে শুরু করেন। কেনিয়াতে হাসপাতালের অবহেলার এমনই ভয়ঙ্কর এক ঘটনার কথা সম্প্রতি সামনে এসেছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

জানা গেছে, ৩২ বছরের ওই ব্যক্তির নাম পিটার কিগেন। সম্প্রতি পেটে প্রচণ্ড ব্যথা নিয়ে কেনিয়ার কেইরিচোর কাপলাটেট হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। সেখানে ভর্তি হওয়ার দিন কয়েক পরে তার পরিবারের লোকের কাছে খবর যায় পিটার মারা গিয়েছেন।

পিটার কিগেন এর ভাই জানিয়েছেন, হাসপাতালের এক নার্স তাকে তার ভাইয়ের মৃত্যুর খবরটি দেন। তিনি বলেছেন, মৃত্যুর খবর পেয়ে আমি হাসপাতালে যাই। মর্গ থেকে দেহ নিয়ে যাওয়ার জন্য আমাকে কাগজপত্র ও দিয়েছিলেন হাসপাতালটির একজন নার্স। এর আগে কর্মকর্তারা দেহ দেখার জন্য আমকে মর্গে ডেকে পাঠান। সেখানে যেতেই চমকে যাই। দেখি ভাই নড়াচড়া করছে। আমি বুঝতে পারছি না এক জন জীবিত ব্যক্তিকে কী ভাবে মর্গে নিয়ে যাওয়া হল।

আর এদিকে পিটার নিজেকে মর্গে আবিষ্কার করে ভয়ে চিৎকার করতে থাকেন ।

 

Scroll to Top